এবার পুজোয় নিজের হাতে সাবেকি দুর্গাপ্রতিমা গড়ে মাকে আবাহন ১৫ বছরের দিশিতার 

এবার পুজোয় নিজের হাতে সাবেকি দুর্গাপ্রতিমা গড়ে মাকে আবাহন ১৫ বছরের দিশিতার 

বয়স মাত্র ১৫। তার সহপাঠীরা যখন ব্যস্ত সোশ্যাল মিডিয়ায়, দশম শ্রেণীর দিশিতা রায়চৌধুরী তখন নিঃশব্দে এক অসাধ্যসাধন করে ফেলেছে। 

দিল্লী পাবলিক স্কুলের ছাত্রী দিশিতা বহুদিন ধরেই ভাস্কর্য ও মৃৎশিল্প নিয়ে আগ্রহী। এই বছর দুর্গাপূজায় সে নজর কেড়েছে একা হাতে এক প্রমাণ আয়তনের সুন্দর দুর্গা প্রতিমা তৈরী করে। কাঠামো গড়া থেকে শুরু করে চক্ষুদান, সবই সে করেছে সম্পূর্ণ নিজে। একচালার অপূর্ব প্রতিমা এই বছর দিশিতার বাড়িতেই পূজিত হবে। 

দিশিতার হাত ধরেই তার বাঘাযতীনের বাড়িতে প্রথম দুর্গাপূজার সূচনা হতে চলেছে। কালিকলমের সঙ্গে একান্ত আলাপচারিতায় সে জানালো তার এই অভাবনীয় কীর্তির গল্প। 

ছোট থেকেই সত্যজিৎ রায়ের বড় ভক্ত দিশিতা। তাঁর চলচ্চিত্র ভালোবাসলেও তাঁর অঙ্কনশৈলী থেকে অনেক বেশি অনুপ্রাণিত সে। “ওঁর ইলাস্ট্রেশান দেখেই আমার আঁকায় হাতেখড়ি। অনেকদিন ধরে চর্চা করার পর হাতটা খানিকটা ভালো হয়েছে,” হেসে বললো দিশিতা। সঙ্গে এও জানালো যে তার আঁকার মূল মাধ্যম হল হাইপাররিয়ালিজম বা অধিবাস্তবতা। “হাইপাররিয়ালিজম সবচেয়ে নিখুঁতভাবে ফুটিয়ে তোলার জন্য স্কাল্পচার বা ভাস্কর্যের কোন বিকল্প নেই।”

বিগত এক বছর ধরে দিশিতা মৃৎশিল্পের কাজ শিখছে শিল্পী শ্যামল সমাজপতির কাছে। তার নিজের গড়া প্রথম কাজ ছিল একটি গনেশের মূর্তি। 

গত পুজোতে ফটোগ্রাফি করতে দিশিতা হাজির হয়েছিল এক প্রতিমাশিল্পীর বাড়িতে। সামনাসামনি ঠাকুর গড়ার কাজ দেখে তার মনে হয় সে নিজেও দুর্গাপ্রতিমা বানাতে পারে। কিন্তু বাধ সাধল স্কুলের পরীক্ষা। 


Liking this story? Become a patron for more!

Become a Patron!


তবে এবছর লকডাউনের দৌলতে তার হাতে ছিল অঢেল সময়। “ভাবলাম এবার চেষ্টা করেই দেখি একবার। বড়জোর অসফল হব,” নির্দ্বিধায় জানালো দিশিতা। 

প্রতিমা
Credits: Facebook/Arunima Ghosh

কিন্তু অসফল হওয়া দূরের কথা, মাত্র কয়েক মাসে দিশিতা গড়ে তুলেছে এক মৃন্ময়ী দেবীমূর্তি যা দেখে বিশ্বাস করা শক্ত যে শিল্পী একজন ১৫ বছরের ছাত্রী।

ঠাকুর বানানোর সব উপকরণ জোগাড় করা সহজ নয়, বিশেষত লকডাউনের মধ্যে। তবে দিশিতা জানায় যে সে তার পরিবারের সম্পূর্ণ সহযোগিতা পেয়েছে এই কাজে। খড়, মাটি, রং সবকিছু সংগ্রহ করতে সাহায্য করেছেন তার মা বাবা।

তবে দিশিতার কাছে সবথেকে বড় চ্যালেঞ্জ ছিল প্রতিমা তৈরীর প্রতিটি ধাপ পুঙ্খানুপুঙ্খ ভাবে অনুসরণ করা। নিরাপত্তার খাতিরে এই বছর কুমোরটুলিতে বেশি মানুষকে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি। তাই সরাসরি তালিমের অনেকটাই ছিল অসম্পূর্ণ দিশিতার কাছে।

Credits: Facebook/Arunima Ghosh

তবে নিজস্ব শিল্পসত্তা ও বুদ্ধি প্রয়োগ করেই দিশিতা তার প্রতিমা বানিয়ে তুলেছে। খড় বাঁধা থেকে গয়নার সাজ, কোনকিছুই বাদ যায়নি সাড়ে পাঁচ ফুটের একচালা প্রতিমায়।

প্যান্ডেল-হপিং প্রিয় দিশিতার দাবী – “কলকাতার যতই ঠাকুর দেখি, শেষে একবার বাগবাজার সার্বজনীনের সেই চিরাচরিত প্রতিমা না দেখলে মন ভরে না।” তাই থিমপুজোর জমানায় তার নিজের প্রতিমাও সুন্দর সাবেকি সাজে ভূষিতা।  

“ইচ্ছা আছে এখন থেকে প্রতিবছর বাড়িতেই প্রতিমা বানিয়ে পুজো করব,” আনন্দের সঙ্গে জানায় দিশিতা। এই বিষণ্ণ বছরের ম্লান পুজোতে নিজের আঙিনায় দেবীকে সাদরে আবাহন করে এনেছে এই কিশোরী। 


Image Credits: Dishita Roy Choudhury

Share This Story
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

One thought on “এবার পুজোয় নিজের হাতে সাবেকি দুর্গাপ্রতিমা গড়ে মাকে আবাহন ১৫ বছরের দিশিতার 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *